রম্য এক্স সিরিজ

  • Share this:

সাদিয়ার সাথে আমার সম্পর্কের দু'দিন হলো মাত্র। এরই মধ্যে তাকে আমার হার্ট, কলিজা, ফুসফুস কিডনি, লিভার সবকিছু দিয়ে ফেলেছি৷ প্রথম রিলেশন আমার তাই তাকে নিয়ে সব চাওয়া পাওয়া খুবই শক্তপোক্ত হয়ে উঠেছে দুদিন পার হতেই। তাকে দুদিনে যা জেনেছি এবং বুঝেছি তাতে আমার মন বলতে লাগলো খুব কেয়ার করতে হবে তার আর তাকে ভালোবাসতে হবে প্রচুর।

এরই মধ্যে সাদিয়ার ফেইসবুক আইডি ঘাটতে শুরু করে দিয়েছি। তার আইডি কিছুক্ষণ ঘাটার পর সামিউল নামের একটি ছেলের কমেন্ট পেলাম। স্পষ্ট বুঝাই যাচ্ছিলো যে এই ছেলের সাথে সাদিয়ার কিছু একটা ছিলো। সাদিয়াকে বললে সে বুক ফুলিয়ে জবাব দিলো সামিউল তার এক্স ছিলো। এবং বললো বাবু আজকাল এসব কমন ব্যাপার এই নিয়ে রাগ করবা। আমার বর্তমান তুমি ভবিষ্যৎও তুমি। আগের কিছু নিয়ে খোটা দিবা। এই সেই কতকিছু বলে সাদিয়া আমাকে কিউট করে বুঝায়। আমি মোমের মতো গলে গিয়ে বেলুন হয়ে ফুলে গিয়ে সাদিয়াকে ক্ষমা করে দেই। এবং রিলেশন কন্টিনিউ রাখি।

অতঃপর সাদিয়ার আইডিতে গিয়ে আরোও পুরাতন কিছু পোষ্ট ঘেটে দেখলাম। রবিউল নামের আরেকটি ছেলের সাথে সাদিয়ার কমেন্টে প্রায় বাসর হয়ে গিয়েছিলো। রেগে গিয়ে সাদিয়াকে সব বলি। সে আবার আগের মতো বুঝ দিতে লাগলো। বললো বাবু এইটাতো বহু আগের। তুমি অল্প কিছুদিন আগের ঘঠনা ভুলে গেলা আর এই ঘঠনাতো এক বছর আগের। ভুলে যাও এটা আমার এক্স লাইট। আমি বললাম এক্স লাইট কি? সে বললো মানে এটার ইনস্টেন্ট আগেরটা। সে কিউট করে বুঝানোয় আমিও ভুলে গেলাম।

আবার শুরু করলাম খুঁজে দেখি আরেকটা নাম নাজমুল। সাদিয়াকে বললে সে বলে এটা নাকি রবিউলের আগেরটা এবং এটা নাকি তার এক্স প্রো। আগের দুইটার মতো এবারো সাদিয়ার মিষ্টি কথায় গলে যাই। আবারো মাফ করে দিলাম।

অতঃপর আরোও একবার ঘাটলাম। এর থেকে আরোও বড় কাহিনি পেলাম। আমার কলেজের শিক্ষক শহীদুল স্যারের সাথে তার হাংকি পাংকি ছিলো। আর শহীদুল স্যারও ছিলেন একটু প্লেবয় টাইপের। এইবার ক্ষেপে যাই। সে উল্টা আমার উপর ক্ষেপে গিয়ে বলে আরে এটা আড়াই বছর আগের। এতো আগের ঘঠনা খুঁজেখুঁজে বের করার কোন মানে আছে? আর শোনো শহীদুল স্যার হচ্ছেন আমার এক্স ম্যাক্স। এইবার তার কড়া শাসনে মেনে নিলাম।

এইবার শেষবারের মতো খুঁজ করতে গিয়ে দেখি আমার বড়ভাইও এই দলে যুক্ত আছেন৷ সাদিয়া এইবার অনুনয় বিনয় করে বুঝাতে লাগলো। বললো মানুষের সাথে এমন কতো ঘঠনা ঘটে আর তোমার ভাই হচ্ছেন আমার প্রথম তিনি এক্স লাইট প্রো ম্যাক্স। তিনি আমার ফার্স্ট লাভ আর তুমি লাস্ট। তাছাড়া তোমার বড় ভাইতো বিয়ে করে নিয়েছে৷ বাবু সব কিছুর জন্য সরি। আর তুমি দয়া করে আমার আইডি ঘাটতে যেয়ো না। আর আইডি ঘাটতে গিয়ে যদি হার্ট অ্যাটাক করো তবে আমাকে দোষতে পারবে না। সাদিয়ার আর বড় ভাইয়েত কীর্তিকলাপ দেখে নিজেকে আর ধরে রাখতে পারি নি। সাদিয়ার সাথে হাড্ডাহাড্ডি ঝগড়া বাধে। এক পর্যায়ে সাদিয়া আমার সাথে পেরে উঠতে না পেরে আমার সাথেও ব্রেকআপ করে নেয়। এবং আমাকে বলে যা শালা আজ থেকে তুই হলি আমার এক্স প্লাস। আমি নিশঃব্দে আসমানের দিকে থাকালা। এবং মনে মনে বললাম এইটা কোন কথা হইলো?

(সমাপ্ত)

লিখা- Mahadi HR

Tags:

About author
আমি গল্প এবং বই প্রেমিক একজন মানুষ। গল্প এবং বই পড়তে খুবই ভালোবাসি। যেখানেই যে গল্প অথবা কাহিনী খুজে পাই সেগুলো সংগ্রহ করি এবং আপনাদের সাথে শেয়ার করার চেষ্টা করি। আমি নিজেও কয়েকটি গল্প লিখেছি তবে সেগুলোর সংখ্যাটা খুবই সামান্য।